মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যম সমূহ | মাল্টিমিডিয়া হলো মানুষের বিভিন্ন প্রকাশের সমন্বয় ।

মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যম সমূহ

আদিকাল থেকে মানুষ নিজেকে প্রকাশ করার জন্য 

বিভিন্ন মাধ্যম বা মিডিয়া ব্যবহার করেছে । লেখা একটি প্রকাশ মাধ্যম শব্দ একটি প্রকাশ মাধ্যম আবার চিত্র একটি প্রকাশ মাধ্যম। আমরা যখন অনেকগুলো প্রকাশ মাধ্যমকে নিয়ে কথা বলি তখন তাকে মাল্টিমিডিয়া বলে । সভ্যতার বিবর্তন ও প্রযুক্তির কারণে এই মাধ্যমগুলোর বহুবিধ ব্যবহার হয়ে আসছে। বিশেষ করে আমরা যখন ডিজিটাল যুগে বাস করছি তখন আমাদের প্রকাশ মাধ্যমে ধরন বদলে গেছে ।

আমরা এখন অনুভব করি যে এনালগ যুগের মিডিয়াগুলো ডিজিটাল যুগের প্রধান প্রকাশ মাধ্যম নয়। বরং এনালগ যুগের পুরনো মিডিয়ায় এ যুগে ব্যবহৃত হলেও এর ব্যাপারে মাত্রা বদলেছে। একসময় যেসব মিডিয়া ভিন্ন ভিন্ন ভাবে ব্যবহৃত হতো তা এখন একসাথে ব্যবহৃত হচ্ছে। আবার সেই সব মিডিয়া যুক্ত হয়েছে ডিজিটাল যন্ত্রে যা প্রোগ্রামিং করার ক্ষমতা রাখে ।আমরা এখন বহু মিডিয়াকে তার বহু মাত্রিকতা ও প্রোগ্রামিং ক্ষমতার জন্য বলছে ইন্টারঅ্যাকটিভ মাল্টিমিডিয়া । এই দুটি শব্দ এখন ব্যাপকভাবে প্রচলিত। এককথায় মাল্টিমিডিয়া ইন্টারঅ্যাকটিভ মাল্টিমিডিয়া মানে হচ্ছে সেই বহুমাধ্যম যার সাথে ব্যবহারকারী যোগাযোগ করতে পারে ।

মাল্টিমিডিয়া হলো মানুষের বিভিন্ন প্রকাশের সমন্বয় ।

আমরা অন্তত তিনটি মাধ্যমকে ব্যবহার করে নিজেদেরকে প্রকাশ করি। সেগুলো হলো বর্ণ শব্দ মাধ্যমগুলির বিভিন্ন রূপে তিনটি মাধ্যমে তাদের বিভিন্ন রূপ নিয়ে কখনো আলাদা ভাবে কখনো একসাথে আমাদের সামনে আবির্ভূত হয়। এসব মাধ্যমে প্রকাশ কে আমরা কাগজের প্রকাশনা রেডিও-টেলিভিশন ভিডিও সিনেমা ভিডিও গেমস শিক্ষামূলক সফটওয়্যার ওয়েবপেজ ইত্যাদি নানা নামে চিনি। তবে এর সবগুলো কেই বা একাধিক মাধ্যমকে আমরা আলাদা ভাবে মাল্টিমিডিয়া বলবোনা। কাগজের প্রকাশনা রেডিওকে মাল্টিমিডিয়া বলতে চাইবেন না বলা ঠিক হবে না । টেলিভিশন ভিডিও সিনেমা মাল্টিমিডিয়া বলতে পারি আবার ভিডিও গেমস শিক্ষামূলক সফটওয়্যার বা ওয়েব পেজকে আমরা ইন্টারঅ্যাকটিভ মাল্টিমিডিয়া বলতে পারে।

মাল্টিমিডিয়া সচরাচর ডিজিটাল যন্ত্রে সহায়তায় ধারণা পরিচালনা করা যায় । এটি সরাসরি মঞ্চে প্রদর্শিত হতে পারে বা অন্য রূপে সরাসরি সম্প্রচারিত হতে পারে । মাল্টিমিডিয়া বিষয়বস্তুর ধারণা ও পরিচালনা করার ইলেকট্রনিক যন্ত্র কে মাল্টিমিডিয়া নামে চিহ্নিত করা হয়ে । থাকে কোন একটি কর্মকাণ্ডে তিনটি মাধ্যমকে একসাথে ব্যবহার করাকে মাল্টিমিডিয়া বলে । উনিশ শতকের শেষ প্রান্তে .১৮৯৫ সালের সিনেমা চলচ্চিত্র উৎসব হবার পর তাতে বর্ণ শব্দ এবং তার বিভিন্ন মাধ্যমের পরস্পর সংলগ্ন হ'য়ে থাকে। যা মাল্টিমিডিয়ার একটি রূপ। 

মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যম সমূহ 

মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমসমূহ আমরা সবাই জানি সবচেয়ে জনপ্রিয় ডিজিটাল যন্ত্র কম্পিউটার গণনা যন্ত্র বা হিসাব নিকাশ করার যন্ত্র  হিসেবে সমধিক পরিচিত হয়ে আসছে। তথ্য প্রক্রিয়াকরণ ও যোগাযোগ করার একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ ছিল কম্পিউটার এর লেখালেখি করা । কিন্তু এতসব কাজ করার জন্য শুরুতে কম্পিউটার  ব্যবহার করতে হতো । কিন্তু বস্তুত কম্পিউটারের মাল্টিমিডিয়া মানে হলো বর্ণ চিত্র শব্দের সমন্বয়ে একটি ইন্টারেক্টিভ অভিজ্ঞতা । অতীতে এখনকার মাল্টিমিডিয়ার অভিজ্ঞতা অনেক সমৃদ্ধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। পাশাপাশি আমাদের হাতের কাছের মোবাইল ফোন স্মার্ট ফোন ট্যাবলেট ও অন্যান্য ডিজিটাল যন্ত্র এখন মাল্টিমিটার ধারণা পরিচালনার জন্য ব্যবহৃত হয় ।

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post